সূরা আল গাশিয়াহ | অর্থসহ বাংলা উচ্চারণ

সুরা নং – ০৮৮ : আল-গাশিয়াহ (বিহ্বলকর ঘটনা), মক্কায় অবতীর্ণ, আয়াত সংখ্যা – ২৬, অবতীর্ণের অনুক্রম – ০৬৮

بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম
পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি ।

[1] هَلْ أَتَاكَ حَدِيثُ الْغَاشِيَةِ

[1] হাল্ আতা-কা হাদীছুল্ গ-শিয়াহ্ ।
[1] আপনার কাছে আচ্ছন্নকারী কেয়ামতের বৃত্তান্ত পৌঁছেছে কি ?

[2] وُجُوهٌ يَوْمَئِذٍ خَاشِعَةٌ

[2] উজু হুঁই ইয়াওমায়িযিন্ খ-শি‘আতুন্ ।
[2] অনেক মুখমন্ডল সেদিন হবে লাঞ্ছিত,

[3] عَامِلَةٌ نَاصِبَةٌ

[3] ‘আ-মিলাতুন্ না-ছিবাতুন্ ।
[3] ক্লিষ্ট, ক্লান্ত ।

[4] تَصْلَى نَارًا حَامِيَةً

[4] তাছ্লা-না-রন্ হা-মিয়াতান্ ।
[4] তারা জ্বলন্ত আগুনে পতিত হবে ।

[5] تُسْقَى مِنْ عَيْنٍ آنِيَةٍ

[5] তুস্ক্বা-মিন্ ‘আইনিন্ আ-নিয়াহ্ ।
[5] তাদেরকে ফুটন্ত নহর থেকে পান করানো হবে ।

[6] لَيْسَ لَهُمْ طَعَامٌ إِلَّا مِنْ ضَرِيعٍ

[6] লাইসা লাহুম্ ত্বোয়া‘আ-মুন্ ইল্লা-মিন্ দ্বোয়ারীই’
[6] কন্টকপূর্ণ ঝাড় ব্যতীত তাদের জন্যে কোন খাদ্য নেই ।

[7] لَا يُسْمِنُ وَلَا يُغْنِي مِنْ جُوعٍ

[7] ল্লা-ইয়ুস্মিনু অলা-ইয়ুগ্নী মিন্ জু‘ইন্ ।
[7] এটা তাদেরকে পুষ্ট করবে না এবং ক্ষুধায়ও উপকার করবে না।

[8] وُجُوهٌ يَوْمَئِذٍ نَاعِمَةٌ

[8] উজু হুই ইয়াওমায়িযিন্ না-‘ইমাতুল্ ।
[8] অনেক মুখমন্ডল সেদিন হবে, সজীব,

[9] لِسَعْيِهَا رَاضِيَةٌ

[9] লিসা’য়িহা-র-দ্বিয়াতুন্ ।
[9] তাদের কর্মের কারণে সন্তুষ্ট ।

[10] فِي جَنَّةٍ عَالِيَةٍ

[10] ফী জ্বান্নাতিন্ ‘আ-লিয়াতি ।
[10] তারা থাকবে, সুউচ্চ জান্নাতে ।

[11] لَا تَسْمَعُ فِيهَا لَاغِيَةً

[11] লা-তাস্মা‘উ ফীহা-লা-গিয়াহ্ ।
[11] তথায় শুনবে না কোন অসার কথাবার্তা ।

[12] فِيهَا عَيْنٌ جَارِيَةٌ

[12] ফীহা-‘আইনুন্ জ্বা-রিয়াহ্ ।
[12] তথায় থাকবে প্রবাহিত ঝরণা ।

[13] فِيهَا سُرُرٌ مَرْفُوعَةٌ

[13] ফীহা-ছুরুরুম্ র্মাফূ ‘আতুও ।
[13] তথায় থাকবে উন্নত সুসজ্জিত আসন ।

[14] وَأَكْوَابٌ مَوْضُوعَةٌ

[14] অ আক্ওয়া-বুম্ মাওদু‘আতুঁও ।
[14] এবং সংরক্ষিত পানপাত্র

[15] وَنَمَارِقُ مَصْفُوفَةٌ

[15] অনামা-রিকু মাছ্ ফূফাতুঁও ।
[15] এবং সারি সারি গালিচা

[16] وَزَرَابِيُّ مَبْثُوثَةٌ

[16] অযারা বিয়্যু মাব্ছূছাহ্।
[16] এবং বিস্তৃত বিছানো কার্পেট ।

[17] أَفَلَا يَنْظُرُونَ إِلَى الْإِبِلِ كَيْفَ خُلِقَتْ

[17] আফালা- ইয়ান্জুরূনা ইলাল্ ইবিলি কাইফা খুলিক্বত্
[17] তারা কি উষ্ট্রের প্রতি লক্ষ্য করে না যে, তা কিভাবে সৃষ্টি করা
হয়েছে ?

[18] وَإِلَى السَّمَاءِ كَيْفَ رُفِعَتْ

[18] অইলাস্ সামা-য়ি কাইফা রুফি‘আত্ ।
[18] এবং আকাশের প্রতি লক্ষ্য করে না যে, তা কিভাবে উচ্চ করা
হয়েছে ?

[19] وَإِلَى الْجِبَالِ كَيْفَ نُصِبَتْ

[19] অইলাল্ জ্বিবা-লি কাইফা নুছিবাত্ ।
[19] এবং পাহাড়ের দিকে যে, তা কিভাবে স্থাপন করা হয়েছে ?

[20] وَإِلَى الْأَرْضِ كَيْفَ سُطِحَتْ

[20] অইলাল্ র্আদ্বি কাইফা সুত্বিহাত্
[20] এবং পৃথিবীর দিকে যে, তা কিভাবে সমতল বিছানো হয়েছে ?

[21] فَذَكِّرْ إِنَّمَا أَنْتَ مُذَكِّرٌ

[21] ফা যার্ক্কি; ইন্নামা য় আন্তা মুযার্ক্কি ।
[21] অতএব, আপনি উপদেশ দিন, আপনি তো কেবল একজন
উপদেশদাতা,

[22] لَسْتَ عَلَيْهِمْ بِمُسَيْطِرٍ

[22] লাস্তা ‘আলাইহিম্ বিমুসাইত্বিরিন্ ।
[22] আপনি তাদের শাসক নন,

[23] إِلَّا مَنْ تَوَلَّى وَكَفَرَ

[23] ইল্লা-মান্ তাওয়াল্লা-অকাফার ।
[23] কিন্তু যে মুখ ফিরিয়ে নেয় ও কাফের হয়ে যায়,

[24] فَيُعَذِّبُهُ اللَّهُ الْعَذَابَ الْأَكْبَرَ

[24] ফাইয়ু‘আয্যিবুহুল্ লা-হুল্ ‘আযা-বাল্ আর্ক্বা ।
[24] আল্লাহ তাকে মহা আযাব দেবেন ।
[25] إِنَّ إِلَيْنَا إِيَابَهُمْ

[25] ইন্না ইলাইনা য় ইইয়া-বাহুম্
[25] নিশ্চয় তাদের প্রত্যাবর্তন আমারই নিকট,

[26] ثُمَّ إِنَّ عَلَيْنَا حِسَابَهُمْ

[26] ছুম্মা ইন্না ‘আলাইনা- হিসা-বাহুম্
[26] অতঃপর তাদের হিসাব-নিকাশ আমারই দায়িত্ব ।

বি.দ্র: অন্য ভাষায় কুরআন সঠিক উচ্চারণ লেখা কখনই সম্ভব নয়। অনুগ্রহপূর্বক কষ্ট করে আরবি শিখে নিবেন।

About the Author

Lutful Al Numan

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *