সুন্নাত কি বা কাকে বলে? সুন্নাত কত প্রকার ও কী কী?

শরীয়তের প্রধান উৎস হচ্ছে দুইটি। একটি হলো আল্লাহর কিতাব তথা মহাগ্রন্থ আল-কুরআন অপরটি হল রাসুলের সুন্নাত বা আল হাদিস। মূলত সুন্নাত হলো আল-কুরআনের সম্পূর্ণ ব্যাখ্যা। চলুন তাহলে সুন্নাত সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেই।

সুন্নাত

সুন্নাত শব্দের অর্থ রীতি, নিয়ম, আদর্শ ইত্যাদি।

শরীয়তের পরিভাষায়, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) এর দৈনন্দিন জীবনের প্রতিটি বাণী,কাজ, অনুমোদন ও মৌন সম্মতিকে সুন্নাত বলে। কুরআন মাজিদে ইরশাদ হয়েছে –

لَقَد كانَ لَكُم فى رَسولِ اللَّهِ أُسوَةٌ حَسَنَةٌ

অর্থ – তোমাদের জন্য আল্লাহর রাসূলের মধ্যেই রয়েছে সর্বোত্তম জীবনাদর্শ। (সূরা আহযাব – ২১)

আরো পড়ুন – ঈমান কি? কী কী বিষয়ের প্রতি ঈমান আনতে হয়? ও ঈমানের গুরুত্ব

সুন্নাতের প্রকারভেদ

সুন্নাত দুই প্রকার। যথা:

  • সুন্নাতে মুয়াক্কাদা
  • সুন্নাতে যায়েদা

সুন্নাতে মুয়াক্কাদা

যেসব কাজ রাসুল (সা:) নিজে করেছেন এবং উম্মতদেরকে তা করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন সেগুলোকে সুন্নাতে মুয়াক্কাদা বলে। যেমন- ফজর নামাযের ফরজের পূর্বে দু’রাকাত, জোহরের নামাজের ফরজ এর পর দু রাকাত সুন্নাত সালাত ইত্যাদি।

হুকুম: কেউ ইচ্ছা করে এ সুন্নাত ছেড়ে দিলে গুনাহগার ও ফাসিক হয়ে যাবে।

সুন্নাতে যায়েদা

যেসব কাজ রাসুল (সা:) কখনো করতেন আবার কখনো ছেড়ে দিতেন এবং উম্মতদেরকে তা করার ব্যাপারে কোনো নির্দেশও প্রদান করেননি, সেগুলোকে সুন্নাতে যায়েদা বলা হয়। যেমন- এশা ও আসরের ফরয নামাযের পূর্বের চার রাকাত সালাত।

হুকুম: সুন্নাতে যায়েদা পালনের মধ্যে অনেক সওয়াব ও কল্যাণ রয়েছে। তবে তা পরিত্যাগ করলে কোন গুনাহ হয়না।

শেষ কথা

সুন্নাত হল পবিত্র কুরআনের ব্যাখ্যাস্বরূপ। অতএব ইসলামের পরিপূর্ণ অনুসারী হতে হলে সুন্নাতের প্রতি গুরুত্বারোপ করা আবশ্যক।

About the Author

Israt Jahan

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *