কেউ আপনার নাম্বার ব্লক করেছে কিনা কীভাবে জানবেন?

আমরা সকলেই জানি যে,বর্তমানে সকল স্মার্ট ফোনে নাম্বার ব্লক করার অপশন আছে। স্মার্টফোনের এই ফিচারটি তৈরি করা হয়েছে বিরক্তিকর কল বা মেসেজ ঠেকানোর জন্যে, কিন্তু আমরা এখন ছোটখাটো বিষয়েও এটি ব্যবহার করে থাকি।

আপনি একটি নাম্বার ডায়াল করেছেন কিন্তু আপনি এর মাধ্যমে তাকে পাচ্ছেন না। এতে আপনি হতাশ ও কিছুটা উদ্বিগ্ন হতে পারেন। কী হচ্ছে?

আপনি যার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করছেন তার ফোনটি কি হারিয়ে গিয়েছে বা ব্যাটারি নষ্ট হয়ে গিয়েছে বা কোন কারণে এটি বন্ধ করে দিয়েছে।

অথবা হতে পারে আপনি যার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করছেন সে আপনার উপর বিরক্ত হয়েছে। এজন্য সে আপনার নাম্বার থেকে আর কল, মেসেজ চায় না তাই সে ব্লক করে রেখেছে। এ কারণে আপনি তাকে আর কল, মেসেজ দিতে পারবেন না।

কেউ যদি আপনার কলগুলোতে বাধা দেয় তবে আপনি কোনধরনের অফিশিয়াল নোটিশ পাবেন না।                                

তাহলে আপনি কি করে বুঝবেন যে আপনার বন্ধু বা অন্য যে কেউ আপনার নাম্বারটি ব্লক করে দিয়েছে?

স্মার্টফোনের নতুন নতুন অনেক বৈশিষ্ট্য  থাকলেও এমন কোন বৈশিষ্ট্য নেই যা দিয়ে আপনি সহজেই জানতে পারবেন আপনার নাম্বারটি ব্লক করা হয়েছে কি না।

তবে কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে আপনি জানতে পারবেন যে আপনার বন্ধু আপনাকে ব্লক করেছে কি না। আজ আমি আপনাদের সেথে সে বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।    

নাম্বার ব্লক

সাধারণ উপায়ঃ নাম্বারটিতে কল দিন

আপনাকে আপনার বন্ধু বা পরিচিত কেউ ব্লক করেছে কিনা তা খুঁজে বের করা অস্বস্তিকর। আপনি যদি মনে করেন যে আপনাকে ব্লক করা হয়েছে এবং আপনি সেটা যাচাই করতে চান তাহলে সেই নাম্বারটিতে কল দিন।

যদি সে আপনার কল ধরে, তাহলে তো নিশ্চিত হয়ে গেলেন যে আপনাকে ব্লক করা হয়নি। যদি আপনার কল রিসিভ না করে, বা আপনি অন্য কোনও আনইউজুয়াল অ্যাক্টিভিটি লক্ষ্য করেন, তবে নিচের বিষয়গুলো দেখতে পারেন-

  • আপনি সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে কল করেন, তখন যদি স্বাভাবিকভাবে রিং হয়, কিন্তু কল রিসিভ করা না হয়, তবে আপনি বুঝবেন আপনার নাম্বার ব্লক করা হয়নি।
  • যদি কলটি এক দুইবার (বা কিছু ক্ষেত্রে, একটি রিংয়ের অর্ধেক)রিং হয়েই বন্ধ হয়ে যায়, অর্থাৎ রিং হওয়ার স্বাভাবিক সময়ের শেষ হওয়ার আগেই রিং শেষ হয়ে যায়, তবে বুঝবেন যে আপনাকে ব্লক করা হয়েছে।
  • যদি আপনার রিং অটোমেটিক ভয়েসমেলে ডাইভার্ট হয়ে যায়, তবে ধরে নিতে পারেন যে আপনার নাম্বার ব্লক করা হয়েছে বা আপনার যোগাযোগের ফোনটি নষ্ট হয়ে গেছে।    
  •  নিশ্চিত হতে আপনার পরিচিত মানুষটিকে কে আবার কল করুন। আপনার কলটি এখনও যদি একটি রিং বা তারও কম পরে শেষ হয় এবং ভয়েসমেলে ডাইভার্ট হয় তবে আপনার পরিচিতির ফোনটি অবশ্যই নষ্ট হয়ে গেছে বা হারিয়ে গেছে বা আপনাকে ব্লক করছে।
  • আপনি তাদের ফোন নাম্বারের আগে *67 ডায়াল করুন। এই কোডটি আপনার নম্বরটিকে অবরুদ্ধ করবে যাতে আপনার কলটি “অজানা” বা “ব্যক্তিগত” নম্বর হিসাবে প্রদর্শিত হয়। আপনি যে নম্বরটি ডায়াল করছেন তার আগে কোডটি প্রবেশ করুন, (যেমন:*67-408-221-XXXX) এইভাবে কল করা যোগাযোগের ফোনের স্থিতিটি যাচাই করবে।যদি কলটি স্বাভাবিকের মতো হয়ে যায় – যেমন, পাঁচ বা তার বেশি রিং – তবে বুঝবেন আপনার নম্বরটিকে ব্লক করেছে। যদি কলটি এখনও একটি রিং বা তারও কম পরে বন্ধ হয়ে যায় এবং ভয়েসমেইলে ডাইভার্ট হয়, তাহলে বুঝবেন আপনার যোগাযোগের ফোনটি নষ্ট হয়ে গেছে।    
  • আবার রিং হলেই যদি দেখেন যে ব্যস্ত অর্থাৎ প্রতিবারই নাম্বারটিকে ব্যস্ত পান, তবে নিশ্চিত হতে পারেন যে আপনার নাম্বারটি ব্লক করা হয়েছে। একেবারে নিশ্চিত হওয়ার জন্যে আপনি অন্য কোন নাম্বার দিয়ে ওই নাম্বারে কল দিতে পারেন। যদি স্বাভাবিকভাবেই রিং হয়, তাহলে আর বুঝবার বাকি থাকবে না যে আপনার নাম্বারটিকে ব্লক করা হয়েছে।

টেকনিক্যাল উপায়-1ঃ সাজেস্টেড কন্টাক্ট চেক করুন

  • আপনার ফোনের কন্টাক্ট অ্যাপটি ওপেন করুন, অর্থাৎ আপনার ফোন নাম্বারে যান।
  • আপনি সন্দেহ করেছেন এমন ব্যক্তি অর্থাৎ, যে আপনাকে ব্লক করেছে  তার নাম বা নাম্বারের উপর ট্যাপ করুন।
  • আপনার স্ক্রিণের উপরে ডান কোণে থাকা ৩টি ডট (…) চিহ্নের উপর ক্লিক করুন।
  • যে ড্রপ-ডাউন মেন্যু ওপেন হবে, সেখান থেকে তাদের কন্টাক্ট মুছতে “Delete” এ ট্যাপ করুন।
  • আবার আপনার কন্টাক্ট অ্যাপ ওপেন করুন।
  • স্ক্রিনের একদম উপরে থাকা সার্চ বারে আলতো করে চাপুন এবং আপনার সেই সন্দেহভাজক বন্ধুর নাম লিখুন।
  • যদি আপনার বন্ধুর নাম (মানে যার নাম্বার ডিলিট করেছেন)  সাজেস্টেট কন্টাক্ট হিসেবে শো করে, তবে খুব সম্ভবত আপনাকে সে ব্লক করেনি। আর যদি দেখেন সাজেশনে তার নাম আসছে না, তবে আপনি প্রায় নিশ্চিত থাকতে পারেন যে আপনার বন্ধু আপনাকে ব্লক করেছে।

টেকনিক্যাল উপায়-২: WhatsApp এ  মেসেজ পাঠান

  • WhatsApp ওপেন করুন এবং চ্যাট অপশনে গিয়ে ওই নাম্বারটিতে ট্যাপ করুন।
  • যে নাম্বারকে সন্দেহ করছেন সে নাম্বারে একটি মেসেজ পাঠান। যখন WhatsApp এ কোন নাম্বারে মেসেজ পাঠানো হয়, তখন মেসেজের পর বিভিন্ন রং এর টিক মার্কসহ স্টেটাস দেখায়। যেমন-
  • যদি ধূসর বা গ্রে রংয়ের একটি টিক চিহ্ন দেখেন, তখন বুঝবেন আপনার ডিভাইস থেকে মেসেজ পাঠানো হয়েছে।
  • আবার যদি ধূসর বা গ্রে রংয়ের দুইটি টিক মার্ক দেখেন, তাহলে বুঝবেন যাকে মেসেজ পাঠিয়েছে সে আপনার মেসেজ রিসিভ করেছে।
  • আপনি যদি দুইটি নীল রঙের টিক মার্ক দেখেন, তাহলে  আপনি যাকে মেসেজ পাঠিয়েছেন, সে মেসেজটি পড়েছে এবং আপনাকে ব্লক দেওয়া হয় নি।
  • আপনাকে যদি ব্লক করা হয় তাহলে আপনি WhatsApp এ  সন্দেহভাজন ব্যক্তির প্রফাইল ফটো দেখতে পাবেন না।
  • যদি আপনাকে ব্লক করে থাকে তবে আপনি তাকে WhatsApp এ কল করলে কল যাবে না।

আশা করি, উপরের পদ্ধতিগুলো ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই বুঝে ফেলবেন যে, কেউ আপনার নাম্বার ব্লক করেছে কিনা। আপনি নিজেও যদি কারো অবাঞ্চিত কল, মেসেজ থেকে মুক্তি পেতে চান, তবে উপরের পদ্ধতিগুলো  থেকে যে কোনটি ব্যবহার করতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ


আজ এ পর্যন্তই। খুব শীঘ্রই  আপনাদের সামনে আরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হব। সে পর্যন্ত ভালো থাকবেন। আর আমার এ আর্টিকেলটি পড়ে ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

About the Author

Israt Jahan

আমি ইসরাত জাহান। পড়াশোনা করছি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। লিখতে খুব ভাল লাগে। তাই প্রতিনিয়ত লিখার চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমার জন্য দোয়া করবেন। ধন্যবাদ।

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *