আলাপ অ্যাপে কথা বলুন মাত্র ৩০ পয়সা প্রতি মিনিট রেটে

আলাপ অ্যাপ হলো (বিটিসিএল / BTCL) বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেড এর আইপি কলিং অ্যাপ। এ অ্যাপ ব্যবহার করে প্রতি মিনিটে মাত্র ৩০ পয়সা খরচে দেশের সকল মোবাইল নাম্বার ও ল্যান্ডফোন নাম্বারে কথা বলা যাবে। তাছাড়া ইন্টারনেট ব্যবহার করে আলাপ অ্যাপ থেকে আলাপ অ্যাপে সম্পূর্ণ ফ্রিতে কথা বলা যাবে।

বর্তমানে alap app প্লে-স্টোর ও আই স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে।এটি BTCL এর নিজস্ব অ্যাপ হওয়ায় খুবই কম খরচে কথা বলা যাবে। শুধু তাই নয় ভবিষ্যতে এ অ্যাপ দিয়ে কম খরচে দেশের বাইরেও কথা যাবে। চলুন তাহলে এ অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেই।

পড়ুন- এসএমএস ফরওয়ার্ড বা ডাইভার্ট কীভাবে করবেন?

আলাপ অ্যাপে কল রেট

  • Alap app to Land Phone – 30 পয়সা/মি.
  • Alap app to Mobile Number – ৩০ পয়সা/মি.
  • Alap app to Alap app – ফ্রি

বি:দ্রঃ ৩০ পয়সার সাথে ১৫% ভ্যাট প্রযোজ্য হবে, তবে সব মিলিয়ে ৩৫ পয়সা খরচ হবে।

আলাপ অ্যাপে একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে?

আলাপ একাউন্ট খুলতে প্রয়োজনীয় উপকরণ হলো –

  • একটি এক্টিভ ফোন নাম্বার
  • ভ্যালিড NID কার্ড
  • ইন্টারনেট কানেকশন

আলাপ অ্যাপে একাউন্ট খুলব কীভাবে?

তাহলে আর দেরি না করে চলুন জেনে নেই Alap অ্যাপে কিভাবে একাউন্ট খুলতে হয়।

  • প্রথমে প্লে-স্টোর বা অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে alaap app download করে ইনস্টল করুন।
  • এরপর অ্যাপে প্রবেশ করে “Continue” বাটনে ক্লিক করুন।
  • এবার যে ফোন নাম্বার দিয়ে আপনি অ্যাপে রেজিস্ট্রেশন করতে চান, সে নাম্বারটি দিয়ে “Continue” এ চেপে “Ok” তে ক্লিক করুন।
  • Pop-up নোটিশ আসলে “Allow” করে দিন, ফোনে পিন কোড আসলে অটোমেটিক বসে যাবে।
  • এবার NID কার্ড দিয়ে একাউন্ট ভেরিফাই করতে “Next” চাপুন।
  • NID কার্ডের সামনের অংশের ছবি তুলতে “Scan the front side of NID card with camera” লিখার নিচে থাকা ক্যামেরা বাটনে ক্লিক করুন।
  • একই উপায়ে NID কার্ডের পিছনের অংশের ছবি তুলতে “Scan the back side of NID card with camera” লিখার নিচে থাকা ক্যামেরা বাটনে ক্লিক করুন।
  • ঠিকভাবে NID কার্ডের উভয় পাশের ছবি তুলে আপলোড করা হয়ে গেলে “Next” এ চাপুন।
  • এবার Scanned Information পেইজে NID তে থাকা তথ্যগুলো প্রদর্শিত হলে “Next” এ চাপুন।
  • এরপর Take a selfie পেইজে আসলে Selfie তুলতে ক্যামেরা বাটনে ক্লিক করুন। তোলা হয়ে গেলে “Next” এ ক্লিক করুন।
  • এবার আপনার তথ্যগুলো ভেরিফিকেশন প্রসেসের মধ্যে দিয়ে যাবে। একটু অপেক্ষা করুন। ভেরিফিকেশন শেষ হলে Initialization প্রসেসের পর Alap অ্যাকাউন্ট খুলে যাবে।

ব্যাস একাউন্ট হয়ে গেল।

পড়ুন – কেউ আপনার নাম্বার ব্লক করেছে কিনা কীভাবে জানবেন?

আলাপ অ্যাপ ব্যবহারের নিয়ম

Alap app এ প্রফাইল আপডেট করার উপায়?

  • প্রথমে Alap app এ প্রবেশ করে ডান দিকে উপরে থাকা ৪ টি বক্স সম্বলিত আইকনে ট্যাপ করুন।
  • এরপর My Account এ ক্লিক করুন।
  • নতুন পেইজ ওপেন হবে। পেইজের ডান দিকের উপরে থাকা Pen আইকনে ক্লিক করুন।
  • পরে পেইজ থেকে আপনার Alap Account এর প্রফাইল পিকচার, ইমেইল, জেন্ডার ইত্যাদি পরিবর্তন করতে চাইলে পরিবর্তন করে “Save” এ ক্লিক করুন।

ব্যাস কাজ শেষ।

আলাপ অ্যাপে কল ফরওয়ার্ডিং চালু করার উপায়?

  • প্রথমে অ্যাপে প্রবেশ করে ডান দিকে উপরে থাকা ৪ টি বক্স সম্বলিত আইকনে ট্যাপ করুন।
  • এরপর Setting এ ক্লিক করুন।
  • পরে Call Forwarding এ ক্লিক করুন।
  • Forward to GSM Call অপশনটি চালু করুন।
  • এরপর যে নাম্বারে Call Forward করতে চান সে নাম্বারটি লিখে “Ok” তে ক্লিক করুন।

ব্যাস কাজ শেষ।

আলাপ অ্যাপে রিচার্জ করব কীভাবে?

  • প্রথমে অ্যাপে প্রবেশ করে ডান দিকে উপরে থাকা ৪ টি বক্স সম্বলিত আইকনে ট্যাপ করুন।
  • এরপর Recharge এ ক্লিক করুন।
  • পরে পেমেন্ট মেথড সিলেক্ট করে এমাউন্ট এন্টার করে “Continue” এ ক্লিক করুন।
  • তারপর স্ক্রিনে প্রদর্শিত নির্দেশনা অনুসরণ করে রিচার্জ সম্পূর্ণ করুন।

Alap অ্যাপে রিচার্জ করার পদ্ধতি

Alap app এ ৩ টি পদ্ধতিতে রিচার্জ করা যায়। এগুলো হলো –

  • বিকাশ
  • নগদ এবং
  • ডেবিট / ক্রেডিট কার্ড

আলাপ অ্যাপ এর সুবিধা

অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, চিরাচরিত কলিং প্রথা বাদ দিয়ে কেনো আমরা Alap app ব্যবহার করব? এটির উওর পেতে হলে চলুন আমরা এর সুবিধা সম্পর্কে আগে জেনে নেই।

  • এ অ্যাপের সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো নাম্বার ডিস্ট্রিবিউশন। এ অ্যাপ ব্যবহারকারীদের আলাদা ইউনিক নাম্বার দেওয়া হবে, যা শুরু হয় ০৯৬৯৬ (সবার জন্য কমন) দিয়ে। এবং আপনি যে নাম্বার দিয়ে Alap app ID খুলবেন সেই নাম্বারের লাস্ট ৬ ডিজিট দিয়ে আলাপ নাম্বার তৈরি হবে।

নোটঃ কারো মোবাইল নাম্বারের লাস্ট ৬ ডিজিট যদি ২৮৭৬২০ হয়, তাহলে তার আলাপ নাম্বার হবে ০৯৬৯৬২৮৭৬২০।

  • এ অ্যাপ ব্যবহার করে ৩০ পয়সা রেটে আমাদের দেশের যেকোন সিম বা ল্যান্ডফোনে কথা বলা যাবে।
  • এর অন্যতম আরেকটি সুবিধা হচ্ছে অফলাইনে থাকা অবস্থায় এ অ্যাপে আসা কলগুলো সরাসরি ফোন নাম্বারেই আসবে। অর্থাৎ, অফলাইনে থাকলেও কল মিস করার সুযোগ থাকছে না।
  • আপনার ফোনে Alap app ইনস্টল করা না থাকলে আপনি আমার Alap নাম্বার ডায়েল করে কল করতে পারবেন।
  • এর আরও সুবিধা হলো কল ফরওয়ার্ড সিস্টেম। অর্থাৎ, এ অ্যাপস ব্যবহারকারী যদি আপনার Alap app নাম্বারে কল দিয়ে না পায়, তবে আপনার মোবাইল নাম্বারে কল চলে যাবে।
  • যেকোন কল অটো রেকর্ড করা যায়।
  • অডিও, ভিডিও কল করার সুযোগ রয়েছে। তাছাড়াও গ্রুপ চ্যাট, কল এবং কনফারেন্স কল করার সুবিধাও রয়েছে।
  • কেউ যদি অফলাইনে থাকো প্রয়োজনে তাকে অডিও বা ভিডিও মেসেজ পাঠানো যায়।
  • তাছাড়া আপনার অ্যাপসের ভিতরে থেকেই আপনার পছন্দের ক্যাটাগরিতে নিউজ পড়ার সুবিধা রয়েছে। ইত্যাদি।

আরও পড়ুন – ইমো থেকে লাইকি (Likee) ভিডিও বন্ধ করার উপায় জেনে নিন

আলাপ অ্যাপসের অসুবিধা

এটি একটি নতুন কলিং অ্যাপ। তাই এর অসুবিধা বলা উচিত হবে না। তবুও কয়েকটি হলো –

  • Alap app ভার্সন মোটামুটি ঠিক থাকলেও আইফোন ভার্সনে এটি মাঝে মাঝে অটোমেটিক্যালি বের হয়ে যায়।
  • রেজিস্ট্রেশন করার সময় যে পিন ভেরিফিকেশন বার্তা পাঠানো হয়, তা মেসেজ এর মাধ্যমে আসছে না কিন্তু কল রিসিভ করে কোড নেওয়া যাচ্ছে।

ত আজ এ পর্যন্তই। আর্টিকেলটি ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

About the Author

Israt Jahan

আমি ইসরাত জাহান। পড়াশোনা করছি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। লিখতে খুব ভাল লাগে। তাই প্রতিনিয়ত লিখার চেষ্টা করে যাছি। আমার জন্য দোয়া করবেন। ধন্যবাদ।

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *